বিএনপির নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় গুজবের ফ্যাক্টরী, বলেন কাদের

রাজনীতি

ছেলেধরা গুজব ছড়ানোর জন্য সরাসরি বিএনপিকে দায়ী করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, বিএনপির নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় হচ্ছে ‘গুজবের ফ্যাক্টরী’।

শনিবার ঢাকার ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের রজত জয়ন্তির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে একথা বলেন কাদের।

পদ্মা সেতুতে মানুষের মাথা লাগবে বলে গুজব ছড়ানোর পর গত কয়েক সপ্তাহে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে বেশ কয়েকজন প্রাণ হারান।

আওয়ামী লীগ নেতাদের কেউ কেউ গুজব ছড়ানোর ক্ষেত্রে বিএনপির সংশ্লিষ্টতার ইঙ্গিত করলে তার প্রতিক্রিয়ায় দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছিলেন, সরকার তাদের ব্যর্থতা আড়াল করতে একথা বলছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, “আন্দোলনে ও নির্বাচনে ব্যর্থ, তারা আজ তাদের নেত্রীর জন্য হা-হুতাশ করছে। তাদের নেত্রীর শারীরিক অবস্থা যতটা না খারাপ, তার চেয়ে বেশি অপপ্রচার করছে।

“আজকে এই দলের কেন্দ্রীয় অফিস একটা গুজবের ফ্যাক্টরি। সেখান থেকে বসে বসে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে একদিকে অপ্রপচার করছে, অন্যদিকে নানা গুজব রটাচ্ছে। গুজব থেকে গণপিটুনি, এই গুজবের পেছনেও এই দলটির হাত রয়েছে।”

সরকারের কাছে এই বিষয়ক তথ্য থাকার দাবি করে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী কাদের বলেন, “আমরা জানি, তারা কী করছে, কোথায় বসে ষড়যন্ত্র হচ্ছে? দেশে হচ্ছে, বিদেশে হচ্ছে।”

দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে বিএনপির ‘অপপ্রচারের’ কারণে এখন এখন দেশের মানুষ তাদের বিশ্বাস করছে না বলে দাবি করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

“গল্পের রাখাল বালকের মতো খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবনতি আর অবনতি। ডাক্তাররা বলে না, অথচ বিএনপি বলে।

অপপ্রচার করতে করতে তারা দেশবাসীর আস্থা এমনভাবে হারিয়ে ফেলেছে যে এখন কোনো সত্য কথা বললেও বিশ্বাস করে না।”

সাম্প্রদায়িক শক্তি দেশের অভ্যন্তরে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছে জানিয়ে তা প্রতিরোধে আওয়ামী লীগের সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান কাদের।

“সাম্প্রদায়িক অপশক্তি এখনও নানামুখী চক্রান্ত দেশের অভ্যন্তরে চালিয়ে যাচ্ছে। দেশের বাইরেও চালিয়ে যাচ্ছে। এই আতঙ্ক ছড়ানোর সঙ্গে বিদেশে বাংলাদেশের নাগরিক হয়ে দেশের বিরুদ্ধে যারা কথা বলছে, এদের যোগসূত্র আছে কি না, এই বিষয়টি আমাদের গভীরভাবে খতিয়ে দেখতে হবে।”

ডেঙ্গু মোকাবেলায় সরকার কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মোহাম্মদ আবু কাউসারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ নাথ।

 

ভয়েস অফ বাংলা/ এএইচ