অবৈধপথে ভারতে পাচার হওয়া বাংলাদেশি তরুণীকে ফেরত

দেশ

অবৈধপথে ভারতে পাচার হওয়া ছোমাইরা খাতুন (৩০) নামে এক বাংলাদেশি তরুণীকে ভারত সরকারের দেয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে ফেরত দিয়েছে ভারতীয় পুলিশ।

মঙ্গলবার (৭ আগষ্ট) সন্ধ্যায় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তরুণীকে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের হাতে তুলে দেয়। লাইট হাউজ নামের একটি এনজিও সংস্থা তরুণীদের পরিবারের কাছে পৌঁছে দিতে নিজেদের জিম্মায় নিয়েছে।

ফেরত আসা তরুনী হলো রাজগঞ্জ মনিরামপুরের মৃত কাদেরের মেয়ে।

লাইট হাউজ যশোর শাখার ইনচার্জ আনিসুজ্জামান ও বেনাপোলের ইনর্চাজ মানসুরা খাতুন জানান, ভালো কাজের প্রলোভনে সাড়ে ৪ বছর আগে এই বাংলাদেশি তরুণী দালালের খপ্পরে পড়ে সীমান্তের অবৈধপথে ভারতে যান। অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে ভারতীয় পুলিশ তাদের আটক করে। সেখান থেকে মাদ্রাজের সোস্যাল সার্ভিস ইমারেল রিচার্ড রাইটনাউ ফাউন্ডেশন নামে একটি শেল্টার হোম তাদেরকে ছাড়িয়ে নিজেদের আশ্রয়ে রাখে।

পরে দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগের মাধ্যমে বিশেষ ট্রাভেল পারমিট আইনে তাদের দেশে ফেরার ব্যবস্থা করা হয়। রাতেই বেনাপোল পোর্ট থানা থেকে তাদের নিয়ে যশোরে রওনা দিয়েছেন তারা। যশোরে তাদের নিজস্ব শেল্টার হোমে রাখা হয়েছিল। পরে তাদের অভিভাবকদের কাছে পৌঁছে দেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার জানান, কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদেরকে লাইট হাউজ এনজিওর হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।